দ্বীন প্রতিষ্ঠায় যুগে যুগে কারাবরণ।

in instablurt •  3 days ago 

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ, আশা করি আপনারা সকলে ভালো আছেন। আমিও ভালো আছি, আলহামদুলিল্লাহ,

আজকের আলোচ্য বিষয় হল:: দ্বীন প্রতিষ্ঠায় যুগে যুগে কারাবরণ।
এই বিষয়ের উপর কিঞ্চিত পরিমানও আলোচনা করব ইনশাআল্লাহ।
দ্বীন প্রতিষ্ঠার যুগে যুগে কারাবরণ ইসলামী ইতিহাসের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ। সরদার দো আলম হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার সাহাবী ও হিতাকাঙ্খিদের নিয়ে শিয়াবে আবু তালেব তিন বৎসর বন্দীত্বের জীবন কাটিয়ে ত্যাগ ও কুরবানী যে সুন্নতের গোড়াপত্তন করেছেন এই উম্মতের জন্য সে পথের পথিক হিসাবে তখন থেকে আজ পর্যন্ত প্রতিযোগী এর অনুসারী দ্বীন প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে ওই সুন্নতকে দ্বিধাহীনচিত্তে বরণ করে নেয়।

যে পথ ধরে ইমাম আবু হানিফা রহমাতুল্লাহ আলাই আব্বাসীয়দের অন্ধকার কারাগারে বন্দী জীবন বরণ করে নেয় সেই জিন্দানখানা তাকে বিষ প্রয়োগ করে শহীদ করা হয়। দিক দর্শনের ধ্বজাধারী মোতালেব বাদশা কুরআনে কারীমে আল্লাহ পাকের মাখলুক বলে চালিয়ে দিতে চাইলে সমুজ্জ্বল ঈমানী আভায় উদ্ভাসিত পাহাড়সম অধীরতা নিয়ে এগিয়ে আসেন ইমাম আহমদ বিন হাম্বল রহঃ ফলে তাকেও জিন্দানখানা যেতে হয়।

সিন্ধু বিজয় মুহাম্মদ বিন কাসিম রহমাতুল্লাহ আলাইহি ভাগ্যের নির্মম শিকার হয়ে এই দিনের জন্যই কারাগারে যেতে হয় এই কারাগারে প্রতিদিন তিনি চরম নির্যাতনের সম্মুখীন হন। ব্রাক্ষন নবাবী বাদশা আকবরের 17 ছায়ায় যখন হিন্দু নিদর্শন উপাদান এর গতি দ্বীন-ই-ইলাহির মাধ্যমে ইসলাম নিশ্চিহ্ন করে দিতে চাইল তখন মুজাদ্দিদে আলফেছানী রহমতুল্লাহি পাহাড় নিয়ে এগিয়ে এল এর রেশ ধরে পরবর্তীতে বাদশা জাহাঙ্গীরের যুগে তাকেও গোয়ালিয়রের অন্ধকার কারাগারে যেতে হয়।

শহীদ হাসানুল বান্না সাইয়েদ কুতুব আব্দুল কাদের আউরা রহমতুল্লাহি কে মিশর সরকারের কোপানলে পড়ে তার রুদ্র রোষের শিকার হয়ে এই দিনের জন্যই মিশরের জেলখানায় জীবন বিসর্জন দিতে হয়। আল্লাহ রাব্বুল আলামীন তাদেরকে পরীক্ষা দিয়েছেন সেই পরীক্ষায় তার ঐ দয়ায় আমাদের সমস্ত আঁকা বীরগণ শতভাগ সফলতার সাথে উতরে গেছেন।

আধুনা বিশ্বে যারা সত্য ও ন্যায়ের পথে অগ্রসর হচ্ছেন তারাই নানা ধরনের বিপদ ও প্রতিকূলতার সম্মুখীন হচ্ছেন । আমাদের দেশেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি 2001 সালের ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের এক বিতর্কটি রায়ের বিরুদ্ধে উলামা-মাশায়েখ কর্তৃক আহুত হরতাল সফল করার জন্য আলেম-উলামা ও ছাত্র জনতা রাজপথে নামলে তাদের ওপর শুরু হয়। পাশবিক নির্যাতন।সর্বজন শ্রদ্ধেয় মুরুব্বি শায়খুল হাদিস আজিজুল হক ও মুফতি ফজলুল হক আমিনী সহ অসংখ্য আলেমদের কারাবরণ করতে হয়।

বর্তমানে আমাদের দেশে অনেক আলেম ওলামারা এই দিনের জন্য তারা নিজেরাই একমাত্র এই দিনে প্রতিষ্ঠার জন্য কার আবদ্ধ হয়ে রয়েছে কারাগারে নিজেদের কষ্ট গুলা নিজেরা সহ্য করে নিচ্ছে।একটি কথা বলে যে কখনো নিজের সাহসকে হারিও না। বাতিলের সামনে মাথা নত করোনা। সর্বদাই হকের উপর থাকবে। হক বিজয় হবেই ইনশাল্লাহ।

সম্মানিত প্রিয় সাথী ও বন্ধুগণ!!! আজকের এই ছোট্ট আর্টিকেলটি এই পর্যন্তই সকলে ভাল থাকুন। সুস্থ থাকুন সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন। আমিও সকলের জন্য দোয়া করি। আসসালামু আলাইকুম।

images (24).jpeg

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE BLURT!